পরীক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে...
বৃহস্পতিবার, জুন ১৩, ২০২৪

গাজায় ১৮টি হাসপাতাল সেবা বন্ধ করে দিয়েছে

ছয় দফা নিউজ ডেস্ক:

গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলি গোলাবর্ষণ এবং বিমান হামলার কারণে সেখানে মোট ১৮টি হাসপাতাল বাধ্য হয়ে সেবা বন্ধ করে দিয়েছে। ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্যসেবা কর্তৃপক্ষ আল-জাজিরাকে এ তথ্য জানিয়েছে। খবর তাস’র।
আল জাজিরা একটি সূত্রের বরাত দিয়ে বলেছে, ‘রাষ্ট্র পরিচালিত আটটি হাসপাতালসহ মোট ১৮টি হাসপাতাল গাজা উপত্যকায় তাদের কাজ বন্ধ করে দিতে বাধ্য হয়েছে। গাজার হাসপাতালের পরিস্থিতি বিপর্যয়কর। বিশেষকরে উত্তরাঞ্চলের হাসপাতালগুলোর অবস্থা এতোই খারাপ যে তা বর্ণনাতীত।’
তিনি বলেন, ‘গাজার উত্তরাঞ্চলের হাসপাতালগুলো ব্যাপক ওষুধ, খাদ্য এবং জ্বালানি সংকটের মুখে পড়েছে।’
ইসরাইয়েলি কর্মকর্তাদের সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, ৭ অক্টোবর গাজা উপত্যকা থেকে ইসরায়েলে একটি সঙ্গীতানুষ্ঠান এবং বিভিন্ন ঘরবাড়িতে চালানো হামাসের ভয়াবহ হামলায় কমপক্ষে ১,৪০০ জন নিহত হয়েছে। হামাসের হামলায় নিহতদের অধিকাংশই বেসামরিক নাগরিক। হামাসের হামলার প্রথম দিনে নির্বিচারে গুলি করে ও পুড়িয়ে মারার এবং ২৩০ জনেরও বেশি লোককে জিম্মি করার পর ইসরায়েল গাজা অবরোধ করে এবং সেখানে ব্যাপক বোমা হামলা চালায়।
৭ অক্টোবর গাজা উপত্যকা থেকে ইসরায়েলে হামাসের হামলার পর থেকেই মধ্যপ্রাচ্য পরিস্থিতি দ্রুত তুমুল উত্তেজনাপূর্ণ হয়ে ওঠে।
এদিকে গাজায় হামাসের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সর্বশেষ পরিসংখ্যান অনুযায়ী, হামাসের হামলার প্রতিশোধ নিতে গাজায় চালানো ইসরায়েলের হামলায় ১০,৩০০ জনেরও বেশি ফিলিস্তিনি নাগরিক প্রাণ হারিয়েছে। এদের প্রায় অর্ধেকেরও বেশি শিশু।
সেখানে ইসরায়েলি বাহিনীর হামলায় হাজার হাজার ভবন ধসে পড়েছে এবং অর্ধেকেরও বেশি জনসংখ্যা বাস্তুচ্যুত হয়েছে।

তথ্যসূত্রঃবাসস

আরো পড়ুন

মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সর্বশেষ সংবাদসমূহ

বিশেষ সংবাদ