পরীক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে...
বৃহস্পতিবার, জুন ১৩, ২০২৪

সুপার ওভারে জিতে সিরিজে সমতা ফেরাল জ্যোতিরা

পাকিস্তানের মেয়েদের হার

ছয় দফা নিউজ ডেস্ক:
সফরকারী পাকিস্তান নারী ক্রিকেট দলের বিপক্ষে রুদ্ধশ্বাস লড়াইয়ের পর শেষ পর্যন্ত সুপার ওভারে গড়ানো নাটকীয় ম্যাচ জিতেছে বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল। মঙ্গলবার সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে লো-স্কোরিং ম্যাচ টাই হয়। পরে সুপার ওভারে জয় তুলে নেয় স্বাগতিকরা। ফলে ৩ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ১-১ সমতায় ফেরে নিগার সুলতানা জ্যোতির দল। এদিন আগে ব্যাট করে অধিনায়ক জ্যোতির অর্ধশতকে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেটে মাত্র ১৬৯ রান তোলে। জবাবে ৪৯.৫ ওভারে ১৬৯ রানেই গুটিয়ে যায় পাকিস্তানের মেয়েরা। টাই ম্যাচটিতে ফল আনতে সুপার ওভার খেলা হয়। সেখানে ৭ রান করতে পারে পাকিস্তান। শেষ বলে নাশরা সিন্ধুকে চার হাঁকিয়ে বাংলাদেশের জয় নিশ্চিত করেন জ্যোতি।

বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দলের অধিনায়ক হিসেবে সর্বাধিক ১৯তম ওয়ানডেতে নেতৃত্ব দিতে নামেন জ্যোতি। টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন তিনি। শুরুটা বেশ ভালোভাবে করলেও উদ্বোধনী জুটি ২১ রানেই ভেঙে যায়। মুরশিদা খাতুন ১২ রানে ফিরে যান। এরপর ফারজানা হক পিঙ্কি ও সোবহানা মোস্তারি ২২ রান যোগ করেন আরও। মোস্তারি ৩৫ বলে ২ চারে ১৬ রানে বিদায় নেন। পিঙ্কি ও জ্যোতি তৃতীয় উইকেটে সতর্ক হয়ে খেলে ১০০ বলে ৪৯ রানের জুটি গড়েন। এতে বিপদ এড়ালেও রান বেশি হয়নি।

সেই চাপেই পরবর্তীতে দ্রুত কিছু উইকেট হারিয়েছে বাংলাদেশের মেয়েরা। পিঙ্কি ৮৮ বলে ৩ চারে ৪০ করে রান আউট হয়ে যান। অবশ্য ফাহিমা খাতুন ১৭ বলে ২ চারে ১৬ রান করে বিদায় নেওয়ার আগে জ্যোতির সঙ্গে ২৭ রানের জুটি গড়েছেন। বাকিরা কেউ জ্যোতিকে ভালো সাপোর্ট দিতে পারেননি। ক্যারিয়ারের চতুর্থ ফিফটি হাঁকিয়ে শেষ পর্যন্ত ১০৪ বলে ৩ চারে ৫৪ রানে সাজঘরে ফেরেন। বাংলাদেশ শেষ পর্যন্ত ৫০ ওভারে ৯ উইকেটে মাত্র ১৬৯ রান করে। সাদিয়া ইকবাল ১০ ওভারে ২ মেডেনে ৩২ রানে ও নাশরা ১০ ওভারে ২৭ রানে ২টি করে উইকেট নেন। উম্মে হানি ১০ ওভারে মাত্র ২৫ রানে নেন ১ উইকেট।

জবাব দিতে নেমে উদ্বোধনী জুটিতে ৪১ রান তুলে দারুণ শুরু পায় পাকিস্তানের মেয়েরা। ৪৩ বলে ২ চারে ২২ রান করা সিদরা আমিনকে সাজঘরে পাঠিয়ে প্রথম সাফল্য এনে দেন ফাহিমা খাতুন। পরের ওভারেই বিসমাহ মারুফ শূন্য রানেই সাজঘরে ফেরেন। এরপর বড় জুটি হয়নি, নিয়মিত বিরতিতেই উইকেট হারিয়েছে পাক মেয়েরা। সাদাফ শামাস ৮৩ বলে ২৯, আলিয়া রাজ ২৮ বলে ২১, অধিনায়ক নিদা দার ৪৭ বলে ২৭ রান করেছেন। বাংলাদেশের বোলারদের দারুণ বোলিংয়ের পরও ৪২.২ ওভারে ৫ উইকেটে ১২৮ রান তুলে ফেলে সফরকারীরা। তখনো ৫ উইকেট বাকি এবং পাকিস্তানের প্রয়োজন ৪৬ বলে ৪২ রান।

কিন্তু ইরাম জাভেদ ১৫, নাঝা আলভি ৩২ বলে ২২ ও ডায়ানা বেগ ১৪ রান করে সাজঘরে ফেরেন। ২ বল বাকি থাকতেই উভয় দলের রান সমান হয়ে যায়। কিন্তু তখনই রানআউট হন নাশরা। ফলে টাই হয়ে যায় ম্যাচ ১ বল বাকি থাকতেই পাকরা ১৬৯ রানে গুটিয়ে গেলে। লেগস্পিনার রাবেয়া খান ১০ ওভারে ২ মেডেনে ২৯ রান দিয়ে ৩ উইকেট নেন। এরপর সুপার ওভারে নাহিদা আক্তারের বাঁহাতি স্পিনে ২ উইকেট হারিয়ে ৫ বলে মাত্র ৭ রান তোলে পাকিস্তান। বাংলাদেশ ৪ দিয়ে শুরু করলেও পঞ্চম বলে উইকেট হারালে শেষ বলে জয়ের জন্য ২ রান প্রয়োজন হয়। নাশরাকে চার হাঁকিয়ে নাটকীয় জয় এনে দেন জ্যোতি।

তথ্যসূত্রঃজনকন্ঠ

আরো পড়ুন

মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সর্বশেষ সংবাদসমূহ

বিশেষ সংবাদ