পরীক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে...
মঙ্গলবার, জুন ১৮, ২০২৪

সিলেটের হরিপুরে নতুন গ্যাসকূপের সন্ধান

ছয় দফা নিউজ ডেস্ক: প্রায় পাঁচ মাস আগে ১শ’ ৪৯ কোটি টাকা ব্যয়ে হরিপুর গ্যাসফিল্ডের ১০ নম্বর কূপের খনন শুরু হয়। রবিবার (২৬ নভেম্বর) সকাল ১১টায় ড্রিলিং স্টিম টেস্ট প্রক্রিয়া শুরু করেন সিলেট গ্যাসফিল্ড লিমিটেড’র কর্মকর্তারা। ২৬শ’ মিটার পর্যন্ত খননের পর এই কূপ থেকে গ্যাসের প্রাপ্যতা নিশ্চিতের কথা জানিয়েছে সিলেট গ্যাসফিল্ড। কর্মকর্তারা বলছেন, এখানে গ্যাসের যে চাপ আছে তাতে ধারণা করা হচ্ছে সর্বনিম্ন ৪৩ বিলিয়ন ঘনফুট থেকে সর্বোচ্চ ১০৬ বিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস মজুতের সম্ভাবনা রয়েছে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, আগামী ৬ মাসের মধ্যে কূপটি থেকে প্রতিদিন ১৫ মিলিয়ন ঘনফুট হারে গ্যাস জাতীয় গ্রিডে যুক্ত করার পরিকল্পনা তাদের। তাছাড়া সাথে ব্যারেল কনডেনসেটও পাওযা যাবে এখান থেকে ৷

প্রথম চেষ্টাতেই অনেকটা সফল, তাই খুশি ভাগাভাগি করতে ফিল্ডেই একে অন্যকে জড়িয়ে উল্লাস প্রকাশ করেন কর্মকর্তারা।

দেশের সবচেয়ে প্রাচীন গ্যাসক্ষেত্র সিলেটের হরিপুর । ১৯৫৫ সালে গ্যাসক্ষেত্রটির সন্ধান পাওয়ার পর এই অঞ্চলে প্রতিনিয়তই চলছে গ্যাস উত্তোলন ও সরবরাহের কাজ। সবশেষ মের্সাস স্লুমবার্গার সিয়াকো কোম্পানির ত্রিমাত্রিক জরিপে জানা যায় এই ক্ষেত্র থেকে প্রায় ৪০৬ বিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস উত্তোলন করা সম্ভব।

সিলেট গ্যাসফিল্ড থেকে প্রতিদিন ১০০ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস জাতীয় গ্রিডে সরবরাহ হয়। ২০২৪ সালের জুনের মধ্যে এই উৎপাদন ১৫০ মিলিয়ন ঘনফুটে নিতে চায় প্রতিষ্ঠানটি। আর পরিকল্পনা অনুযায়ী ২০২৫ সালের মধ্যে সব কাজ শেষ হলে প্রতিদিন ২৫০ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস সরবরাহ করতে পারবে সিলেট গ্যাসফিল্ড লিমিটেড।

তথ্যসূত্রঃএখন টিভি অনলাইন

আরো পড়ুন

মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সর্বশেষ সংবাদসমূহ

বিশেষ সংবাদ