পরীক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে...
মঙ্গলবার, জুন ১৮, ২০২৪

গাজায় রেড ক্রিসেন্ট দফতরে হামলার নিন্দা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার

ছয় দফা নিউজ ডেস্ক:
বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান গাজায় প্যালেস্টাইন রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির সদর দফতরে হামলার নিন্দা জানিয়েছেন এবং তাদের এই হামলাকে ‘বিবেকহীন’ বলে উল্লেখ করেছেন।
সংঘাতের সময় স্বাস্থ্যকে কখনই হামলার লক্ষ্য করা উচিত নয় উল্লেখ করে ডাব্লিউএইচও প্রধান টেড্রোস আধানম গেব্রিয়াসিস মঙ্গলবার বলেছেন, গাজাবাসীরা একটি ‘ভয়াবহ মানবিক বিপর্যয়ের’ মুখোমুখি হচ্ছে।
প্যালেস্টাইন রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি (পিআরসিএস) বলেছে, ইসরায়েল দক্ষিণের শহর খান ইউনিসে তাদের সদর দফতরে দু’বার আঘাত হেনেছে। যার ফলে বাস্তুচ্যুত লোকেদের মধ্যে ‘পাঁচ জন নিহত এবং তিন জন আহত’ হয়েছে যারা সেখানে এবং কাছাকাছি একটি হাসপাতালে আশ্রয় চেয়েছিল।
আধানম এক্স-এ বলেছেন, ‘আমি পিআরসিএস-চালিত আল-আমাল হাসপাতালে আজকের হামলার নিন্দা জানাই।’
তিনি বলেন, ডাব্লিউএইচও’র কর্মী এবং জাতিসংঘের মানবিক সংস্থা ওসিএইচএ-এর সহকর্মীরা মঙ্গলবার এই সুবিধাগুলোতে একটি মিশন হাতে নিয়েছিল, ‘যেখানে তারা ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি এবং বাস্তুচ্যুত বেসামরিক লোকদের দেখেছে’।
‘হু’ প্রধান দাবি করেছেন, ১৪ হাজার মানুষ হাসপাতালে আশ্রয় নিচ্ছেন।
জাতিসংঘ স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান বলেন, ‘তাদের মধ্যে অনেকেই এখন চলে গেছে এবং যারা বাকি আছে তারা তাদের নিরাপত্তার জন্য অত্যন্ত ভীত এবং তারা আশ্রয় ও সুরক্ষার জন্য এমন একটি জায়গা ছেড়ে যাওয়ার পরিকল্পনা করছে।’
তিনি বলেন, ‘হাসপাতাল, অ্যাম্বুলেন্স, স্বাস্থ্যকর্মী এবং যারা যতœ নিচ্ছেন তাদের অবশ্যই আন্তর্জাতিক মানবিক আইনের অধীনে সর্বদা রক্ষা করতে হবে।’
স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান বলেন, ‘আজকের বোমাবর্ষণ অবাঞ্ছিত। গাজার স্বাস্থ্য ব্যবস্থা ইতোমধ্যেই ভেঙ্গে পড়েছে। হামলার কারণে রোগীদের জীবন বাঁচাতে স্বাস্থ্য ও সাহায্য কর্মীদের প্রচেষ্টা ক্রমাগত বাধাগ্রস্ত হচ্ছে।’
তিনি ‘ক্ষুধা, রোগের বিস্তার এবং স্বাস্থ্যবিধি ও স্যানিটেশনের অভাবে গাজাবাসীরা অবর্ণনীয় পরিস্থিতিতে বসবাস করতে বাধ্য হচ্ছে। ‘গাজার নাগরিকদের খাদ্য, চিকিৎসা সেবা এবং পানির সরবরাহ পাওয়ার জন্য জরুরি পদক্ষেপের পাশাপাশি অবিলম্বে যুদ্ধবিরতির আহ্বান পুনর্ব্যক্ত করেছেন।

তথ্যসূত্রঃবাসস

আরো পড়ুন

মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সর্বশেষ সংবাদসমূহ

বিশেষ সংবাদ