পরীক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে...
রবিবার, জুন ২৩, ২০২৪

ইসরায়েলিদের খোঁজে রাশিয়ার বিমানবন্দরে বিক্ষুদ্ধ জনতার হামলা

ছয় দফা নিউজ ডেস্ক:
রোববার রাশিয়ার ককেশাস প্রজাতন্ত্রের দাগেস্তান বিমানবন্দরে ইসরায়েল থেকে একটি ফ্লাইট আসার গুজব ছড়িয়ে পড়ার পর ইসরায়েলি এবং ইহুদিদের সন্ধানে বিক্ষুদ্ধ জনতা বিমান বন্দরে ব্যাপক হামলা চালায়।

বেশিরভাগ মুসলিম অঞ্চলে সহিংসতার কারণে গাজায় ইসরায়েল এবং হামাসের মধ্যে যুদ্ধে পরিণত হয়। ইসরায়েলকে তার নাগরিকদের সুরক্ষার জন্য রাশিয়াকে আহ্বান জানানোর হয়েছিল। জনতা বিমানবন্দরে মার্কিন যুক্তরোষ্টর ‘বিদ্বেষ বিরোধী’ মনোভাবের জন্য প্রতিবাদ করেছিল।

দাগেস্তানের গভর্নর প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন যে এই ঘটনার জন্য দায়ীদের শাস্তি দেওয়া হবে।

সোশ্যাল মিডিয়া এবং রাশিয়ার আরটি এবং ইজভেস্টিয়া মিডিয়াতে পোস্ট করা ভিডিও অনুসারে কয়েক ডজন বিক্ষোভকারী অনেকেই ‘আল্লাহু আকবর’ বলে স্লোগান দিয়ে মাখাচকালা বিমানবন্দরের দরজা এবং পুলিশের বাধা ভেঙ্গে কিছু ঘুষ দিয়ে রানওয়েতে ঢুকে পড়ে।

রাশিয়ার এভিয়েশন এজেন্সি রোসাভিয়েতসিয়া ঘোষণা দিয়েছে, এই ঘটনার পর বিমানবন্দরটিতে বিমান চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়। নিরাপত্তা বাহিনী বিমানবন্দরে টহল দিচ্ছে।

স্থানীয় কর্তৃপক্ষ টেলিগ্রামে জানিয়েছে, ‘পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে।’

প্রজাতন্ত্রের স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, সেখানে পুলিশের লাঠিচার্জে বেশকিছু লোক আহত হয়েছে। তবে কতজন হয়েছে সে সম্পর্কে বিস্তারিত জানায়নি।

রোববার দিনের শেষের দিকে রোসাভিয়েতসিয়া ঘোষণা করেছে, বিমানবন্দর থেকে বিক্ষুদ্ধ জনতাকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে। আগামী ৬ নভেম্বর পর্যন্ত বিমানবন্দরে বিমান ওঠানামা বন্ধ থাকবে।

একজন বিক্ষোভকারী ভিডিওতে একটি চিহ্ন ধারণ করে দেখা গেছে যাতে লেখা ছিল ‘দাগেস্তানে শিশু হত্যাকারীদের কোনো স্থান নেই।’

অন্যান্য ভিডিওতে দেখা গেছে একটি বিমানবন্দর টার্মিনালের ভিতরে ভিড়ে দরজা ভেঙে ফেলার চেষ্টা করা হয়েছে। কারণ, বিমানবন্দরের নিরাপত্তা কর্মীরা তাদের বাধা দেওয়ার চেষ্টা করেছিল।

ফ্লাইট রাডার ওয়েবসাইটটি ইঙ্গিত দিয়েছে যে তেল আবিব থেকে একটি রেড উইংস ফ্লাইট স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৭টায় মাখাচকালায় অবতরণ করেছে।

স্বাধীন রাশিয়ান মিডিয়া আউটলেট সোটা বলেছে যে এটি একটি ট্রানজিট ফ্লাইট। দুই ঘন্টা পর মস্কোর উদ্দেশে যাত্রা করবে।

ইসরায়েলি কর্মকর্তাদের মতে, হামাস যোদ্ধারা ৭ অক্টোবর ইসরায়েলের ইতিহাসে গাজা সীমান্ত পেরিয়ে সবচেয়ে মারাত্মক হামলা চালিয়ে নির্বিচারে ১,৫০০ জনকে হত্যা করে। এদের বেশিরভাগই বেসামরিক নাগরিক এবং ২৩০ জনকে অপহরণ করে।

হামাস পরিচালিত ভূখন্ডের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মতে, গাজায় নিরলসভাবে বোমাবর্ষণ করে ইসরায়েল প্রতিশোধ হিসেবে ৮ হাজার লোককে লোককে হত্যা করেছে।এদের অর্ধেক শিশু।

তথ্যসূত্রঃবাসস

আরো পড়ুন

মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সর্বশেষ সংবাদসমূহ

বিশেষ সংবাদ