পরীক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে...
মঙ্গলবার, জুন ১৮, ২০২৪

জাজের ‘চিতা’য় অনন্ত-বর্ষা

ছয় দফা নিউজ ডেস্ক: প্রয়াত লেখক কাজী আনোয়ার হোসেনের অমর সৃষ্টি ‘মাসুদ রানা’। এই লেখকের ‘অপারেশন চিতা’ নামের উপন্যাস থেকে এবার নির্মিত হচ্ছে ‘চিতা’ নামের সিনেমা। জাজ মাল্টিমিডিয়া প্রযোজিত অ্যাকশন থ্রিলারধর্মী সিনেমাটি নির্মাণ করতে যাচ্ছেন কলকাতার নির্মাতা রাজীব বিশ্বাস।

সিনেমাটিতে জুটিবদ্ধ হয়েছেন তারকা দম্পতি অনন্ত জলিল ও বর্ষা। এছাড়াও রয়েছেন ‘এমআর-৯ : ডু অর ডাই’ সিনেমা দিয়ে পরিচিত পাওয়া আলিশা ইসলাম। বুধবার (৩১ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় রাজধানীর ঢাকা ক্লাবে এক মহরতের মাধ্যমে সিনেমাটির ঘোষণা দেওয়া হয়। এসময় অভিনয়শিল্পী ও নির্মাতাকে পরিচয় করিয়ে দেওয়া হয়। এই সিনেমার মাধ্যমে প্রথমবার জাজ মাল্টিমিডিয়া প্রযোজিত সিনেমা করতে যাচ্ছেন অনন্ত জলিল ও বর্ষা।

অনন্ত জলিল বলেন, এর আগে মাসুদ রানার গল্পে ‘এমআর-৯ : ডু অর ডাই’ নির্মাণ করেছিল জাজ মাল্টিমিডিয়া। সিনেমাটিতে হলিউড-বলিউডের তারকারা অভিনয় করেছিল। এবার দেশের তারকারাও থাকবে। সিনেমাটি শুরুর আগে আজিজ ভাইয়ের কাছে তিন জিনিস চেয়েছিলাম- প্রেম থাকবে, কমেডি থাকবে আর মাসুদ রানার গল্প অ্যাকশন তো থাকবেই। সবকিছু মিলে যাওয়ায় সিনেমাটি করছি। আর নির্মাতা রাজীব বিশ্বাসের নির্মাণে অপারেশন জ্যাকপটে কাজ করছি, তাই মনে হচ্ছে এই সিনেমাটিও মানসম্পন্ন একটি সিনেমা হবে।

বর্ষা বলেন, ২০১২ সালে ‘খোঁজ দ্যা সার্চ’ সিনেমার মহরতে বুঝতে পারছিলাম না কী বলব? আজও সেই একই অনুভূতি হচ্ছে। সবাই বলছে, চিতা সিনেমার জন্য অনেক কষ্ট করতে হবে আমাকে। যেহেতু জাজ মাল্টিমিডিয়ার সিনেমা, তো ভালো সিনেমাই হবে। ভালো হতেই হবে কারণ, এটা মাসুদ রানার গল্প, যাকে বলা হয় বাংলার জেমস বন্ড। যখন শুনলাম চিতা সিনেমাটি আমি করতে যাচ্ছি তখন নীলক্ষেত থেকে ‘চিতা’ বইটি এনে পড়েছি। পাশাপাশি এই সিরিজের ‘হ্যালো সুহানা’ গল্পটিও আমার ভালো লেগেছে। আশা করব এই সিনেমাটিও আমাকে নিয়ে নির্মাণ করবে।

আলিশা বলেন, এর আগে এমআর-৯ : ডু অর ডাই-এ নবনীতা চরিত্রে অভিনয় করে ভালোবাসা পেয়েছি। তার বড় মাধ্যম ছিল মিডিয়া। এর কারণেই চিতার মতো বড় সিনেমায় সুযোগ পেয়েছি। আশা করি এবারও আমাকে অনেক ভালোবাসা দেবেন।

জানা যায়, এ সিনেমার শুটিং শুরু হবে আগামী মে মাসে। শুটিংয়ের জন্য বেছে নেওয়া হয়েছে বাংলাদেশ, থাইল্যান্ড, ইন্দোনেশিয়া ও ভিয়েতনামকে। সিনেমাটিতে আরও দেখা যাবে নাদের চৌধুরী, সাঞ্জু জন, মিস্টার রবার্টসহ অনেকেই।

এর আগে কাজী আনোয়ার হোসেনের সৃষ্ট গোয়েন্দা চরিত্র মাসুদ রানা সিরিজের ‘ধ্বংস পাহাড়’ অবলম্বনে নির্মিত হয়েছিল বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের যৌথ প্রযোজনায় ‘এমআর-৯ : ডু অর ডাই’ সিনেমাটি।

গেল বছর ২৫ আগস্ট মুক্তি পায় ‘এমআর-৯ : ডু অর ডাই’। এতে মাসুদ রানা চরিত্রে দেখা যায় এবিএম সুমনকে। এছাড়াও হলিউড ও বলিউডের বেশ কয়েকজন তারকা অভিনয় করেছিলেন। ৮৩ কোটি বাজেটে নির্মিত এই সিনেমাটি ব্যবসায়িকভাবে সাফল্য পায়নি।

তথ্যসূত্রঃরাইজিংবিডি

আরো পড়ুন

মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

সর্বশেষ সংবাদসমূহ

বিশেষ সংবাদ